The many (so many!) benefits of Almond oil in life
0


আমন্ড অয়েল প্রাচীন কাল থেকে ত্বক, চুল ও স্বাস্থ্য সুরক্ষায় ব্যবহার হয়ে আসছে। শুকনো বাদামের ওজনের অর্ধেক হ’ল তেল। অপরিশোধিত বাদাম তেল পুষ্টি এবং তেলের স্বাদ রক্ষা করে। পরিশোধিত বাদাম তেল তৈরিতে উচ্চ তাপ এবং কখনও কখনও রাসায়নিক ব্যবহার করা হয়। বাদাম তেল ভিটামিন ই পূর্ণ, এবং এটি ম্যাগনেসিয়াম, ফসফরাস এবং তামার একটি দুর্দান্ত উত্স। অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট সমৃদ্ধ তেলটি তার র‌্যাডিক্যাল লড়াইয়ের ক্ষমতার জন্য পরিচিত। এটি প্রদাহ বিরোধী এবং প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। চলুন জেনে নেই আমন্ড অয়েলের অসাধারন কিছু কাজ-

স্বাস্থ্যগত সুবিধা-
ক্যালোরি: ১১৯

মোট ফ্যাট: ১৩.৫ গ্রাম

স্যাচুরেটেড ফ্যাট: ১.১ গ্রাম

মনস্যাচুরেটেড ফ্যাট: ৯.৪ গ্রাম

পলিউনস্যাচুরেটেড ফ্যাট: ২.৩ গ্রাম

ভিটামিন ই: ২৬%

ফাইটোস্টেরলস: ৩৫.৯ মিলিগ্রাম

বাদাম তেল ভিটামিন ই এর একটি দুর্দান্ত উত্স এবং এতে অল্প পরিমাণে ভিটামিন কে রয়েছে।

এছাড়াও বাদামের তেল ভিটামিন ই এবং অসম্পৃক্ত ফ্যাট সমৃদ্ধ। আপনার ডায়েটে বাদামের তেল যোগ করা হার্টের স্বাস্থ্যের উন্নতি করতে পারে, ওজন হ্রাসকে সহায়তা করে এবং রক্তে শর্করার মাত্রা স্থিতিশীল রাখতে পারে। অপরিশোধিত বাদাম তেল রান্নায় ব্যবহার করা উচিত নয়, কারণ উচ্চ তাপমাত্রা এর পুষ্টিগুণ নষ্ট করতে পারে।

খাওয়ার উপায়-
-সালাদ ড্রেসিং হিসাবে: ফল বা সবজির সালাদের সাথে বাদামের তেল ড্রেসিং হিসেবে মিশিয়ে খাওয়া যায়।
-পাস্তা: পুষ্টি বাড়াতে আপনার পাস্তায় খানিকটা বাদামের তেল দিন।
-খাবারে নাটি ফ্লেভার আনতে হালকা বাদাম তেল ব্যাবহার করা যেতে পারে।

ত্বকের জন্যে আমন্ড অয়েল-

 রূপচর্চায় আমন্ড ওয়েল খুবই উপকারী। এই তেলে ওমেগা-৯ ফ্যাটি অ্যাসিড, এসেনশিয়াল ওমেগা-৬ ফ্যাটি অ্যাসিডের পরিমাণই বেশি। তাই এই তেল ত্বকের সুস্থতা এবং উজ্জ্বলতায় বেশি কার্যকরী। প্রতিদিন ব্যবহারে চেহারায় বয়সের ছাপ পড়ে না এবং বলিরেখা দূর হয়।
বাদামের তেল ত্বককে রৌদ্রের ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করতে এবং দাগ প্রতিরোধ করতে সহায়তা করতে পারে। এটি ময়েশ্চারাইজার, ম্যাসাজ অয়েল বা মেকআপ রিমুভার সহ বিভিন্ন উপায়ে ব্যবহার করা যেতে পারে। বাদামের তেল দ্রুত সিক্ত হয় এবং এটি একটি শক্তিশালী ময়েশ্চারাইজার, তাই এটি মুখ বা শরীরে ব্যবহার করা সহজ। আপনি এটিকে সরাসরি প্রয়োগ করতে পারেন বা এটির সুবিধার জন্য এটি প্রয়োজনীয় তেলগুলির সাথে মিশ্রিত করতে পারেন। আপনার ত্বককে ময়শ্চারাইজ করার বাইরে বাদাম তেল একটি দুর্দান্ত ম্যাসেজ তেল বা ত্বকের চিকিত্সা। এটিতে শক্তিশালী অ্যান্টিফাঙ্গাল বৈশিষ্ট্য রয়েছে

কার্যকারিতা

রাতে ঘুমানোর আগে আমন্ড অয়েল ত্বকে মাখলে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ে ও হারানো জেল্লা ফিরে আসে।

ত্বকের গভীরে গিয়ে পুষ্টি জোগাতে সাহায্য করে এই তেল। মেকআপ তুলতে এটি ব্যাবহার করুন।

যাদের তৈলাক্ত ত্বক তারা এই তেল কম ব্যবহার করবেন।

আমন্ড তেল শুষ্ক ত্বকে আর্দ্রতা ধরে রাখে। চোখের নিচের কালো দাগ বা ডার্ক সার্কেল হালকা করে এই তেল। রাতে শোবার আগে ম্যাসাজ করে ঘুমিয়ে পরলে সকালে ভালো ফল পাওয়া যায়।

চুলের যত্নে আমন্ড অয়েল

বাদামের তেল বাদাম গাছের বীজ থেকে বের করা হয়। ওমেগা -9 ফ্যাটি অ্যাসিড এবং ভিটামিন ই সহ স্বাস্থ্যকর এবং স্বাস্থ্যগত বৈশিষ্ট্যগুলির জন্য অনেকগুলি প্রাচীন সংস্কৃতিতে বাদামের তেলের কথা বলা আছে ।

– বাদামের তেল চুলকে নরম করে। এছাড়াও মাথার চামড়া নরম করে চুলে পুষ্টি জোগায়।
– বাদামের তেল চুলকে মজবুত করে এবং মেরামত করে
– চুল ভাঙ্গার ঝুঁকি কমাতে পারে আগা ফেটে যাওয়া রোধ করে।
– বাদামের তেল চুলের বৃদ্ধি বাড়াতে পারে
-বাদাম তেলে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ই রয়েছে যা প্রাকৃতিক অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট। যা ক্ষতিগ্রস্ত চুলকে আবার সারিয়ে তুলতে পারে।
– বাদামের তেল ফ্ল্যাচি স্ক্যাল্প (সিবোরিহিক ডার্মাটাইটিস) এবং মাথার ত্বকের সোরিয়াসিসের চিকিত্সা হিসাবেও ব্যবহার করা যেতে পারে।
– বাদামের তেল শুকনো মাথার ত্বকের জন্য ব্যবহার করা হয়। মাথার ত্বকে সরাসরি অল্প পরিমাণে বাদামের তেল মাখানোর ফলে এই অঞ্চলে রক্ত ​​প্রবাহ বৃদ্ধি পায় এবং মাথার ত্বকে শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিডেন্টগুলির কাজ বাড়ে

ব্যাবহার বিধি

-আপনি বাদামের তেল সরাসরি আপনার চুলে প্রয়োগ করতে পারেন, এটি প্রয়োগ করার আগে তালুতে অল্প পরিমাণে ঘষে নিন। চুলে উজ্জ্বলতা এবং কোমলতা বাড়াতে চাইলে চুলের আগায় বেশী করে দিন।
– আপনি কন্ডিশনার হেয়ার মাস্কের উপাদান হিসাবে বাদাম তেলও ব্যবহার করতে পারেন। নারকেল তেল, বাদাম তেল এবং কন্ডিশনার একসাথে মিশ্রিত করুন। পরিষ্কার, শুকনো চুলের জন্য এই শক্তিশালী হেয়ার মাস্কটি প্রয়োগ করুন এবং এটি ৪০ মিনিটের জন্য রেখে দিন।

সাবধানতা
বাদাম তেল সাধারণত নিরাপদ। যার যার মারাত্মক বাদামের অ্যালার্জি রয়েছে তাদের চুলের উপর বা অন্য কোনও উদ্দেশ্যে বাদামের তেল ব্যবহার করা উচিত নয়, কারণ এতে অ্যালার্জিজনিত প্রতিক্রিয়া মারাত্মক হতে পারে।
-হিট স্টাইলিংয়ের আগে চুলে বাদাম তেল রাখবেন না। তেল চুলের ফলিকলের চারপাশে উত্তাপিত হবে এবং এটি আপনার মাথার ত্বকে বা চুলের শ্যাফট নিজেই পোড়াতে পারে।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

0

TOP

0
0 item
X